মাসে ৩ লাখ টাকার বিনিময়ে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দেয় কেএনএফ: র‍্যাব


মাসে ৩ লাখ টাকার বিনিময়ে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দেয় কেএনএফ: র‍্যাব


বান্দরবানের কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সঙ্গে মাসিক তিন লাখ টাকার বিনিময়ে জঙ্গিদের প্রশিক্ষণের জন্য চুক্তি করে জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্কীয়া।

আজ শুক্রবার দুপুরে বান্দরবান জেলা পরিষদ মিলনায়তনে র‌্যাব সংবাদ সম্মেলন করে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানিয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে যৌথ বাহিনীর অভিযানে অস্ত্র–গুলিসহ সাত জঙ্গি ও তিন কেএনএফ সদস্য গ্রেপ্তার হয়েছেন। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রশিক্ষণ সম্পর্কে এসব তথ্য দিয়েছেন।

প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে যৌথ বাহিনীর চলমান জঙ্গিবিরোধী অভিযানের ব্যাপারে জানাতে র‍্যাব এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

আরও পড়ুনঃ “আওয়ামী লীগ কখনো বিএনপির সমাবেশে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেনি”

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন বলেন, গতকাল রাতে রোয়াংছড়ি বাজার এলাকা থেকে তিনজন কেএনএফ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার কেএনএফের সদস্যরা হলেন রোয়াংছড়ির বাজার এলাকার লালমুন সয় বমের ছেলে জৌথান স্যাং বম (১৯), লালমিন সম বমের ছেলে স্টিফেন বম (১৯) ও জিক বিল বমের ছেলে মালসম বম (২০)। তাঁদের বাড়ি একই উপজেলার জুরবারাংপাড়ায়। তিনজনই কেএনএফের সামরিক শাখার সদস্য ও গোপন আস্তানায় জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার সঙ্গে জড়িত।

র‍্যাবের সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গ্রেপ্তার তিন কেএনএফ সদস্য জিজ্ঞাসাবাদে বলেছেন, কেএনএফের প্রতিষ্ঠাতা নাথান বম। জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্কীয়ার উপদেষ্টা শামী মাহফুজের সঙ্গে নাথান বমের একটি চুক্তি হয়। ২০২১ সালের চুক্তি অনুযায়ী, ২০২৩ সাল পর্যন্ত জঙ্গি সদস্যদের কেএনএফের গোপন আস্তানায় প্রশিক্ষণ প্রদান করার কথা। এর বিনিময়ে জঙ্গিরা কেএনএফকে মাসিক তিন লাখ টাকা এবং কেএনএফের সদস্যদের সমস্ত খরচ বহন করবে।