চাঁদে করে চাঁদে ভ্রমণ



বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নতি মানুষকে পৃথিবীর বাইরের স্বাদ দিয়েছে অনেক আগেই। আর প্রতিবারই মানুষকে পৃথিবীরে বাইরে যেতে হয়েছে রকেটে চড়ে।

কিন্তু এবার ব্লু মুন নিয়ে যাবে চাঁদে। চাঁদে বসবাসের জন্য বেসরকারি উদ্যোগে মানুষ পাঠানো নিয়ে পরিকল্পনা আগেই জানিয়েছেন অনলাইন শপিং প্লাটফর্ম অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস।

মানুষ চাঁদে পাঠানোর এই মহাকাশযান তাই এবাই জনসম্মুখে আনেন তিনি। ব্লু মুন’ নামের চন্দ্রযানটি স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসির ওয়াশিংটন কনভেনশন সেন্টারে প্রদর্শন করেন বেজোস।

ব্লু অরিজিন নামে একটি প্রতিষ্ঠান এ চন্দ্রাভিযানের প্রকল্পের বাস্তবায়ক এবং এর মালিকানায় রয়েছেন বেজোস।

বসবাসের জন্য মানুষ চাঁদে পাঠাতে ২০২৪ সালের মধ্যেই সফল হবেন তারা এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। চাঁদের দক্ষিণ পৃষ্ঠ যেখানে রয়েছে বরফের আচ্ছাদন সেখানেই মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনা চলছে।

মানুষের বসবাসযোগ্য করার জন্য বরফখণ্ড কেটে পানি বের করার পরিকল্পনার কথাও জানান বিশ্বে শীর্ষ ধনীদের তালিকায় থাকা এ ব্যক্তি।

তিনি আরো জানান, ‘ব্লু মুন’ নামের এ মহাকাশযানে করে মানুষ চাঁদের পৃষ্ঠে নামবে। পাশাপাশি বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি, স্যাটেলাইট ও রোভার বহন করবে যানটি।

বিই-৭ নামে একটি রকেট ইঞ্জিনও অনুষ্ঠানে প্রদর্শন করেন বেজোস, যেটি পাঠানো হবে চন্দ্রপৃষ্ঠে। বেজোসের বক্তব্য থেকে আরো উঠে আসে, ব্লু অরিজিন মানুষ পাঠানোর যান নির্মাণের কার্য শুরু করে ২০১৬ সালে। এ প্রকল্পে বিনিয়োকৃত অর্থের জন্য তিনি অ্যামাজনের শেয়ার বিক্রি করেছেন।