অতঃপর মাটির নিচ থেকে জীবন্ত নবজাতক উদ্ধার করলো কুকুর!



জীবন্ত পুঁতে রাখা হয়েছিল এক নবজাতককে। ঘটনাটি ঘটেছে থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলের বান নং খাম নামক একটি গ্রামে। নবজাতককে মাটি খুঁড়ে উদ্ধার করেছে একটি পোষা কুকুর।

গণমাধ্যমে জানা যায়, পিংপং কুকুরের মালিক দেখেন তার কুকুরটি মাটি খুঁড়ছে আর ঘেউ ঘেউ করছে।এরপর কুকুরের মালিক কাছে গিয়ে দেখেন মাটির নিচ থেকে একটি পা বের হয়ে আসছে।

তারপর অন্যদের সহায়তায় শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়। ডাক্তাররা জানান শিশুটি বেঁচে আছে।

খবর নিয়ে জানা যায়, শিশুটির মা ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী।তার সন্তানপ্রসবের বিষয়টি গোপন করতেই এই কাজটি করা হয়েছিল।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, ‘উদ্ধার হওয়া নবজাতকটির মায়ের বিরুদ্ধে শিশুকে পরিত্যাগ এবং হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে।’

পুলিশ আরও জানিয়েছে, কিশোরী ও তার পরিবার এই কাজের জন্য অনুতপ্ত এবং তারা ওই নবজাতককে লালন-পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মানবতা হারিয়ে যাচ্ছে। পেটের সন্তানকেও মাটি চাপা দিতে দ্বিধা করেনা অথচ পোষা বোবাজাত প্রাণী যার কোন সম্পর্ক নেই বিভিন্ন ক্ষেত্রে দেখা যায় তারাই বাচ্চাদের রক্ষা করে।

জীবনের নানা ক্ষেত্রে দেখা যায় মানুষ তার মানবিক দিক ভুলে যায় তখন এই প্রাণীরাই রক্ষাকবচ হয়ে ওঠে।