এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে জোর করে চুমু খাওয়ার অভিযোগ


trump

নারী কেলেঙ্কারি যেনো যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পিছু ছাড়ছে না। এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে এক নারীকে তিনি জোর করে চুমু খেয়েছিলেন।

সোমবার ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মিডল ডিস্ট্রিক্টের একটি আদালতে  মামলাও করেছেন আলভা জনসন নামের আফ্রিকান-আমেরিকান নারী।আলভা বর্তমানে আলাবামা অঙ্গরাজ্যের বাসিন্দা।

আদালতকে আলভা জানিয়েছেন তিনি ক্ষতিপূরণ চান।এছাড়া ট্রাম্প যাতে এ রকম ঘটনা অন্য কোনো নারীর সঙ্গে করতে না পারেন, সে রকম আদেশও চান।

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, আলভা জনসন (৪৩)২০১৬ সালে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারকর্মী হিসেবে কাজ করেছিলেন।

ওই সময়ের একটি ঘটনার উল্লেখ করে মামলায় চার সন্তানের জননী আলভার অভিযোগ করেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প জোর করে চুমু খেয়েছেন।

অভিযোগে আলভা জানিয়েছেন, ২০১৬ সালের ২৪ আগস্ট ফ্লোরিডার টেম্পায় ওই ঘটনা ঘটে। ট্রাম্প সেদিন এক জনসমাবেশে যাবেন বলে গাড়িতে উঠছিলেন। এ সময় হঠাৎ করেই তার সম্মতি ছাড়াই তাকে চুমু খেয়ে বসেন ট্রাম্প।

ঘটনার আকস্মিকতায় একেবারে স্তব্ধ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। এ সময় ফ্লোরিডার বর্তমান অ্যাটর্নি জেনারেল পাম বোন্দি ও ট্রাম্পের ফ্লোরিডা ক্যাম্পেইনের তৎকালীন পরিচালক কারেন জিওর্নো সেখানে উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

যদিও পাম বোন্দি ও কারেন জিওর্নো গণমাধ্যমকে বলেছেন, ওই দিন এ রকম কিছু তারা দেখেননি।

এদিকে আলভা বলছেন, জিওর্নোই পরে ওই ঘটনা সবাইকে বলেন। এটা নিয়ে ক্যাম্পেইন কর্মীরা ঠাট্টাও করতে থাকেন। ‘এই অভিযোগ সঠিক নয়। এ রমকটি কখনো ঘটেনি।’ এক বিবৃতিতে বলেছেন হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স।