করোনার নতুন কেন্দ্র রোমানিয়া!


করোনাভাইরাসে-মৃত্যু #paperslife


গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে নভেল করোনাভাইরাস। সাত মাস পেরিয়ে গেলেও কমেনি প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের তাণ্ডব। বরং প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে হাজার হাজার মানুষ। এমন অবস্থায় ইউরোপে করোনাভাইরাসের নতুন হটস্পট হয় উঠছে রোমানিয়া।

দেশটিতে প্রতিদিনই গড়ে এক হাজারের বেশি আক্ৰান্ত হচ্ছেন। সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী দক্ষিণ ইউরোপের এ দেশটিতে গতকাল নতুন করে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ১৮৯ জন।

২৬ ফেব্রুয়ারি রোমানিয়ার গর্জে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্ৰান্ত শনাক্ত করা হয়। আক্রান্ত ব্যক্তি ৭১ বছর বয়সী এক ইতালিয়ানের সংস্পর্শে এসেছিলেন যিনি মূলত পারিবারিক এবং একই সঙ্গে ব্যবসায়িক কাজে ইতালির কাত্তোলিসা থেকে রোমানিয়াতে এসেছিলেন। পরে তিনি আবার যখন ইতালিতে ফিরে যান তখন তার শরীরে কোভিড-১৯ এর উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়।

এরপর ধীরে ধীরে দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকে। প্রথম কয়েক দিন রোমানিয়াতে যাদের শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয় তাদের বেশিরভাগই সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার কয়েক দিন পূর্বে ইতালি ভ্রমণ করেছিলেন।

গত ১১ এপ্রিল রোমানিয়াতে ৫২৩ জনের শরীরে কোভিড-১৯ এর উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া যায়, নতুন করে সংক্রমণের হার বিবেচনায় একদিনের ব্যবধানে প্রথম ধাপে যেটি ছিল সর্বোচ্চ। কিন্তু জুনের মাঝামাঝি সময় থেকে শুরু করে জুলাইয়ের দিকে এসে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বিপরীতে মোড় নেয়। সেকেন্ড ওয়েভে অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করে দেশটিতে পুনরায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্ৰান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। একই সাথে বাড়তে থাকে মৃত্যুর মিছিল।

ওয়ার্ল্ডও মিটারস ডট ইনফোতে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের এ দেশটিতে মোট করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৮,৫০৫ জন, এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ৩,২৭২ জন এবং চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন ৩৫,২৮৭ জন। প্রতিদিন যে রকম এক হাজারের ওপর মানুষ দেশটিতে নতুন করে এ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন, একই সাথে প্রত্যেকদিন গড়ে ৩৫ থেকে ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে।