ঘণ্টায় তিন হাজার মাইল বেগে উড়বে এই সুপারসনিক প্লেন



প্রযুক্তির কল্যানে আবিস্কার হয়েছিলো চাঁকা। এরপর থেকে স্হলপথ,নৌপথ পেরিয়ে আকাশপথেও সমান বিচরন মানুষের দাড়া তৈরীকৃত প্রযুক্তির।

এমনই এক সুপারসনিক প্লেনের আবিস্কার হয়েছে যেটি ঘন্টায় তিন হাজার মাইল বেগে ছুটতে পারবে। এই সুপারসনিক প্লেনে মাত্র দেড় ঘন্টায় লন্ডন থেকে নিউ ইয়র্ক যাওয়া যাবে।

হারমিস নামের এক স্টার্টআপ এমনই এক প্লেন বানাচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, প্লেনটি ঘন্টায় তিন হাজার মাইল বেগে ছুটতে পারবে। নিউ ইয়র্ক থেকে লন্ডনের ফ্লাইটের সময় সাত ঘন্টা থেকে কমে ৯০ মিনিটে দাঁড়াবে।

এই প্লেনটি বানাতে বিনিয়োগ করছে খোসলা ভেনচারস। খোসলা ভেনচারস প্রতিষ্ঠাতা ভিনোদ খোসলা বলেন, ‘হারমিস এমন একটি প্লেন বানাচ্ছে, যা শুধু ফ্লাইটের সময় কমিয়ে এভিয়েশন অভিজ্ঞতা উন্নতই করবে না বরং সমাজে এবং অর্থনীতিতে এর দারুন প্রভাবও থাকবে।’

তবে তিনি নতুন এই প্লেনটি নিয়ে এখনও বিস্তারিত কোনো তথ্য দেননি।

ম্যাক ৫ হচ্ছে এটি শব্দের গতির পাঁচ গুণ। হারমিস জানিয়েছে, সুপারসনিক এই বিমান গতিতে ম্যাক ৫-এর চেয়ে বেশি হবে। বিমানটিতে অভিজ্ঞ লোকদের নিয়ে দারুণ একটি বোর্ড রয়েছে হারমিসের।

এর মধ্যে আছেন ব্লু অরিজিন-এর সাবেক প্রেসিডেন্ট রব মেয়ারসন এবং লকহিড মার্টিন স্কাংক ওয়ার্কস-এর সাবেক মহাব্যবস্থাপক রব ওয়েইস।

বিজ্ঞানের কল্যানে পৃথিবী এখন হাতের মুঠোয়। নতুন নতুন আবিষ্কার অনেক কিছুইকেই সহজ থেকে সহজতর করেছে। এভাবেই আকাশ পথের যাত্রা দ্রুতগামী হয়। প্রযুক্তির কল্যাণে সেই যাত্রা আরও স্বল্প হলো।