ড্রাগের চেয়েও মারাত্মক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম!



সম্প্রতি এক গবেষণায় বাংলাদেশের মনোবিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে, বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আসক্তি ড্রাগের চেয়ে কোন অংশে কম নয়।

গবেষকরা জানিয়েছেন, এই আসক্তিতে পড়ে মানুষের আগের চেয়ে তুলনামুলক অস্থিরতা বেড়ে গেছে।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও মনোবিজ্ঞানী মেহতাব খানম বলছেন, ‘সোশাল মিডিয়ার কারণে বিশেষ করে পরিবারের ভেতরেও নানা রকমের সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে অল্প বয়সী ছেলেমেয়ে থেকে শুরু করে তাদের অভিভাবকদের মধ্যেও তৈরি হচ্ছে মানসিক চাপ।’

কাউন্সেলিং নিতে আসা শিশুদের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অনেক সময় বাচ্চারা বলছেন অভিভাবকদের কারণে তাদের কৈশোর জীবন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়াও,  তারা পড়াশোনার ওপরই বেশি জোর দিচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটে পড়ালেখার কাজও দেয়া হয়। কিন্তু বাবা মায়েরা তা বুঝতে চাইছে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখন সম্পর্কগুলো দ্রুত হয়ে যাচ্ছে । সহজেই একজনের সাথে আরেকজনের যোগাযোগ হচ্ছে। একারণে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক, একাধিক সম্পর্ক-এসবও বেড়ে যাচ্ছে অনেক। অনেক সময় ফেসবুকে এমন কিছু দেখছে যা তাদের ওপর প্রভাব ফেলছে, হতাশও হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তার মতে ড্রাগের আসক্তির চেয়েও সিরিয়াস হয়ে যাচ্ছে এটা।’