তিনি জন্ম দিয়েছেন ৮০০ সন্তানের!



সাইমন ওয়াটসন বাস করেন যুক্তরাজ্যে। যুক্তরাজ্যের এই অধিবাসী দাবি করেছেন, গত ১৫ বছরে তিনি অন্তত ৮০০ সন্তানের বাবা হয়েছেন। এরকমটা শুনে অনেকেই তাঁকে মানসিক ভারসাম্যহীন ভেবে থাকেন, কিন্তু সাইমন ওয়াটসনের এ দাবী অসত্য কিছু নয়।

সাইমন ওয়াটসন সত্যি সত্যি ৮০০ সন্তানের বাবা। তবে এর পেছনে রয়েছে অন্যরকম ঘটনা। ৪১ বছর বয়সী এ ব্রিটিশ নাগরিক একজন পেশাদার শুক্রাণুদাতা। বিগত ১৬ বছর ধরে নিজের শুক্রাণু দিয়ে আসছেন।

সাইমন এ জন্য ইন্টারনেটে একটি সাইটও খুলেছেন। প্রতি তিন মাস পরপর নিজের সুস্থতার বিষয়ে পরীক্ষা করে সেই রিপোর্ট তিনি তার সাইট ও সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাকাউন্টে তুলে দেন। আর সেখান থেকে ক্লায়েন্ট তথ্য সংগ্রহ করে অনেক নারী ও দম্পতি এসে শুক্রাণু নিয়ে যান।

সাইমনের কাছ থেকে শুক্রাণু সংগ্রহ করে বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকে সন্তান জন্ম দেয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন নারীরা। শুক্রাণু দিতে ৫০ পাউন্ড করে সার্ভিস চার্জও নেন সাইমন ওয়াটসন।

তবে সাইমন ওয়াটসনের এই পেশা ব্রিটেনে অবৈধ। এর জন্য তার কোনো লাইসেন্স নেই।

যুক্তরাজ্যে কৃত্রিম গর্ভধারণের বিষয়ে আইনি বিধি-নিষেধ রয়েছে। অনেক ক্ষেত্রেই এভাবে সন্তান ধারণ বৈধতা পায় না দেশটিতে। এই বিধি নিষেধ কে উপেক্ষা কী মা ডাকটি শুনতে অনেক নারী সাইমন ওয়াটসনের মতো শুক্রাণু দাতাদের শরণাপন্ন হন।

সাইমন ওয়াটসন বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, ‘আমি অন্তত ৮০০ সন্তানের বাবা হয়েছি। এ প্রক্রিয়ায় আমি আরও সন্তানের বাবা হতে চাই, একে আমি রেকর্ড বলে মনে করি। আমি চাই আমার রেকর্ডটি কেউ না ভাঙুক।’

সাইমন ওয়াটসনের এই পেশায় কোন লাইসেন্স নেই তা সত্ত্বেও তিনি এই কাজ করে যাচ্ছেন। আর মা হওয়ার আকুতি নিয়ে অনেকেই তার শরণাপন্ন হচ্ছে।