প্লাস্টিক থেকে তৈরি হবে সোনা?




আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রতিনিয়ত প্লাস্টিকের ব্যবহার যেন একে অপরের পরিপূরক। বলা যেতে পারে, প্লাস্টিক ছাড়া চলে না আমাদের জীবন। প্রতিটি কাজেই যেমন প্লাস্টিকের ব্যবহার রয়েছে, ঠিক তেমনই এই প্লাস্টিক পরিবেশের জন্য বেশ ক্ষতিকর। প্লাস্টিক ব্যবহারের ফলে সারা পৃথিবীতে ছড়িয়েছে দূষন। আর এই দূষন নিয়েই পৃথিবীতেই উদ্বেগের শেষ নেই।

কিন্তু যদি বলা হয় আপনার হাতের প্লাস্টিকটি থেকে তৈরী হতে পারে সোনা, বিশ্বাস হবে কি? দূষণের কারণ ভেবে ফেলে দিবেন সে প্লাস্টিককে? নাকি যত্ন করে জমিয়ে রাখবেন?

এমনই এক বিস্ময় ঘটিয়েছে সুইস বিজ্ঞানীরা। প্লাস্টিক ম্যাট্রিক্সের মিশ্রণ ব্যবহার করে তৈরি করেছেন ১৮ ক্যারেটের সোনা। ‘সায়েন্স’ পত্রিকায় প্রকাশিত এক জার্নালে জানানো হয়েছে এই কথা।

সুইজারল্যান্ডের ইটিএইচ জুরিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী রাফায়েল মেজেঙ্গা জানিয়েছেন নতুন সোনার ওজন প্রচলিত ১৮ ক্যারেট সোনার চেয়ে প্রায় দশগুণ কম।

তিনি জানিয়েছেন, ‘এটি তৈরিতে প্রোটিন ফাইবার এবং পলিমার ল্যাটেক্স ব্যবহার করা হয়েছে। প্রথমে সোনার ন্যানোক্রিস্টালের পাতলা একটি ডিস্ক রেখে পানির মধ্যে দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়, তারপরে অ্য়ালকোহলের মধ্য দিয়ে নিয়ে গিয়ে তৈরী করা হয় একটি জেল। সেই জেলকে উচ্চ চাপের কার্বন ডাই অক্সাইড গ্যাসের মধ্য নিয়ে গেলেই তৈরী হবে এই নতুন সোনা।’

তিনি আরো জানান, ‘হালকা হলেও এটি একদম খাঁটি ১৮ ক্যারেটের সোনা। খনিজ সোনার মতোই এর ঔজ্জ্বল্য। পালিশ করাও তুলনামূলক সহজ। প্রচলিত মিশ্রণগুলিতে তিন চতুর্থাংশ সোনার সঙ্গে এক-চতুর্থাংশ তামা মেশানো থাকে। তাতে প্রতি ঘনসেন্টিমিটার সোনার ওজম হয় ১৫ গ্রাম। সেখানে প্লাস্টিক থেকে তৈরি সোনার ওজন প্রতি ঘনসেন্টিমিটারে মাত্র ৭ গ্রাম।’