ফেসবুক জুড়ে পাইরেটেড মুভির ছড়াছড়ি



গত রোববার প্রকাশিত এ প্রতিবেদনে বলা হয়, “এই গ্রুপগুলোর কিছু কয়েক বছরের পুরানো, কপিরাইট লঙ্ঘন করে এমন কনটেন্ট শনাক্ত করতে ফেইসবুকের কনটেন্ট মডারেটরদের দল আর  স্বয়ংক্রিয় সফটওয়্যার থাকা সত্ত্বেও এই গ্রুপ গুলো রয়ে গিয়েছে।”
জানা গেছে, অ্যান্ট ম্যান এবং এ কোয়াইট প্লেইস-এর মতো সাম্প্রতিক ব্লকবাস্টার মুভিগুলোর ক্যাটালগে ভরে উঠছে গ্রুপগুলো। আর গ্রুপ কর্তৃপক্ষরাও এগুলো লুকানোর কোনো চেষ্টা করছে না।
‘ফুল এইচডি ইংলিশ মুভি’ নামের এক গ্রুপে ১,৩৪,০০০ জন ও ‘ফ্রি ফুল মুভিজ ২০১৮’ নামের এক গ্রুপে ১,৭১,০০০ জন সদস্য রয়েছেন।
তিনি বলেন, “কনটেন্টের সত্ত্বাধিকারী না বললে এ ধরনের কনটেন্ট সরানোর দায় এই প্রতিষ্ঠানের নয়।”
পাইরেটেড কনটেন্ট ছড়ানোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের অংশ হিসেবে ফেইসবুক ২০১৭ সালে মার্কিন স্টার্টআপ ‘সোর্স৩’-কে কিনে নেয়। অনুমতি ছাড়া ব্যবহারকারীদের শেয়ার করা পাইরেটেড ভিডিও বা অন্যান্য কনটেন্ট সরাতে সহায়তার লক্ষ্যে সোর্স৩-কে কিনে সোশাল জায়ান্টটি।