ভারতের উত্তর প্রদেশে বন্যায় ১৩ জনের মৃত্যু


ভারতের উত্তর প্রদেশে বন্যায় ১৩ জনের মৃত্যু


ভারতের উত্তর প্রদেশে আকস্মিক বন্যা ও বৃষ্টিজনিত দুর্ঘটনায় অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়াও আহত হয়েছেন ১১ জন। রাতভর ভারি বৃষ্টিপাতে তলিয়ে গেছে রাজধানী নয়াদিল্লি ও গুরুগ্রাম।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, রাতভর প্রবল বর্ষণে ডুবে গেছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি। পানির নিচে শহরের অধিকাংশ রাস্তাঘাট ও এলাকা। জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে শহরের প্রধান সড়কগুলোতেও। এতে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ।

গেল তিন দিনের অব্যাহত ভারি বৃষ্টিপাতে স্থবির হয়ে পড়েছে রাজধানীর জনজীবন। ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। ভারতের আবহাওয়া দফতর জানায়, বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল থেকে শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ভোর পর্যন্ত রাজধানীতে প্রায় ৪১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় রাজধানীতে মাঝারি সতর্কতা জারি করেছে দেশটির আবহাওয়া বিভাগ।

আরও পড়ুনঃ প্রতি চার সেকেন্ডে ক্ষুধায় মারা যাচ্ছেন একজন

ভারি বৃষ্টিপাতের খবর পাওয়া গেছে পার্শ্ববর্তী গুরুগ্রামেও। বৃহস্পতিবার শহরটিতে ৫৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে রাজধানী নয়াদিল্লি, ও গুরুগ্রামে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এ ছাড়াও ঘরে বসে কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে গুরুগ্রামের বেসরকারি ও করপোরেট অফিসগুলোকে।

প্রবল বর্ষণ অব্যাহত রয়েছে উত্তরাঞ্চলীয় আরেক শহর নয়ডাসহ গোটা উত্তর প্রদেশে। রাজ্যটিতে বৃষ্টিজনিত দুর্ঘটনায় এরই মধ্যে বেশ কয়েকজনের হতাহতের খবর পাওয়া গেছে। এদের অধিকাংশই বজ্রপাত ও দেয়ালধসে হতাহতের শিকার হন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।