মানসিক চাপ থেকে মুক্তি মিলবে নিমেষে



মেনে নেয়া বা মানিয়ে নেয়ার মধ্যেই সীমাবদ্ধ আমাদের জীবন। রুটিনে আবদ্ধ জীবনে হয়তো সকালের অ্যালার্ম বাজার পর শরীর বিছানা ছেড়ে উঠতেই চায় না, এর কারণ আলসেমি বা ঘুম নয় বরং মানসিক চাপ। তীব্র মানসিক চাপ নিয়েই যখন আপনি দিনের প্রতিটি কাজ সম্পন্ন করছেন, তখন তার ছাপ পড়ছে আপনার শরীরেও।

তবে এই চাপ দূর করার কিছু ধাপ রয়েছে। এ ধাপগুলো নির্ভর করে চাপের মাত্রার ওপর। তবে তাত্ক্ষণিক উপায়ে সাধারণ মানসিক চাপ কমানোর কিছু সূত্র জেনে রাখা ভালো—

কফি বা দুধ চা নয়। যখন মনে হচ্ছে মস্তিষ্কের প্রতিটি কোনাই অবরুদ্ধ, তখন এক কাপ গ্রিন টি পান করুন। গ্রিন টি এল-থিয়ানিনের উৎস। এটি এমন একটি উপাদান, যা রাগ ও উত্তেজনা প্রশমিত করে। স্ট্রেস কমাতে কাপে গ্রিন টি নিয়ে গরম পানি দ্বারা পূর্ণ করুন। এবার অল্প অল্প চুমুক দিন।

ডেস্কের ড্রয়ারে স্ন্যাকসের পাশাপাশি চুইংগামের প্যাকেট রাখুন। মিন্ট বা ফলের স্বাদ যেমনই হোক না কেন, চুইংগাম চিবাতে থাকলে স্ট্রেসও কমতে থাকে। মাত্র কয়েক মিনিট চুইংগাম চিবালে অ্যাংজাইটি ও কর্টিসল হরমোনের মাত্রা হ্রাস পায়।

তীব্র মানসিক চাপ অনুভূত হলে কিছু সময় বিছানায় গা এলিয়ে বিশ্রাম নিতে পারলে সবচেয়ে ভালো হয়। তবে অফিসে যেহেতু সে সুযোগ নেই, সেহেতু চেয়ারে মাথা রেখে হাত দুটো হাতলের ওপর রাখুন। পা টান টান করে আলতো করে চোখ বুজে থাকুন কিছুক্ষণ। গভীরভাবে শ্বাস নিন, ধীরে ধীরে শ্বাস ছাড়ুন। ভাবুন আপনার হতাশা, চাপ ও সব নেতিবাচক অনুভূতি ধীরে ধীরে মস্তিষ্ক থেকে উবে যাচ্ছে।

দীর্ঘক্ষণ কাজ করলে, বিশেষত যদি মানসিক চাপ থেকে থাকে ও পাশাপাশি কাজের চাপও থাকে, তাহলে এক ফাঁকে চেয়ার ছেড়ে উঠে পড়ুন। অফিসের বারান্দা বা কমন রুমে সোফায় গা এলিয়ে দিয়ে চোখ বন্ধ করে থাকুন কিছুক্ষণ। দেখবেন জীবন কতটা সুন্দর…