করোনায় ২ নিউইয়র্ক প্রবাসীর মৃত্যু


korona-death#paperslife

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নিউইয়র্কে দুই বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে।

এস্টোরিয়া এলাকার বাসিন্দা ষাটোর্ধ্ব একজন গত বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান। হার্টের সমস্যাসহ নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর কুইন্সের একটি হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছিল। অন্যজন কুইন্সের উডসাইডের বাসিন্দা ছিলেন। পেশায় গ্রিন ক্যাবের চালক ছিলেন। তাঁর বয়স ৫০ বছর। এনওয়াইপিডি কর্মকর্তা খান শওকত তাঁর মৃত্যুর তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

করোনাভাইরাস এখন নিউইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে রীতিমতো আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। অনেক বাংলাদেশির এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর লোকমুখে শোনা গেলেও ঠিক কতজন বাংলাদেশি আক্রান্ত হয়েছেন, সঠিক পরিসংখ্যান পাওয়া যাচ্ছে না। এর কারণ যাঁরা আক্রান্ত হচ্ছেন, তাঁদের পরিবার বিষয়টি লুকিয়ে রাখতে চাইছে। আশপাশের প্রতিবেশীদের কাছ থেকে কোনো কোনো ব্যক্তির আক্রান্ত হওয়ার খবর জানা যাচ্ছে।

এ বিষয়ে নিউইয়র্ক সক্রমক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. লিনিয়া আহমেদ কিকি বলেন, বাংলাদেশি কমিউনিটি এবং আমেরিকান কমিউনিটি নিয়েই আমরা বেশ সচেতন। এ রোগ প্রতিহত করতে আমাদের মূল লক্ষ্যেই হচ্ছে একজন থেকে জন্য অন্যজনে না ছড়ায়।

এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায়, শুক্রবার নিউইয়র্ক, কানেকটিকাট ও ইলিনয়ে বসবাসকারী সবাইকে বাধ্যতামূলক বাড়িতে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন অঙ্গরাজ্যগুলোর গভর্নররা।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণ হারিয়েছেন ২৭৫ জন । এদের মধ্যে কেবল নিউইয়র্কেই মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। এছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজারের বেশি।