করোনার কারণে শুরুই হয়নি শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজের


শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম
করোনার কারণে শুরুই হয়নি শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজের

করোনাভাইরাসের কারণে থমকে গেছে বিশ্বের জনজীবন। বিশ্বের মতো স্থবির হয়ে পড়েছে দেশের ক্রীড়াঙ্গনও। চার মাসের বেশি সময় ধরে দেশের সব ধরণের ক্রিকেটীয় কর্মকাণ্ড স্থগিত। সেই সাথে থেমে গিয়েছে পূর্বাচলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে যে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম নির্মাণের কথা, তার কাজ।

বছরের শুরুর দিকে পূর্বাচলে শেখ হাসিনা স্টেডিয়ামের নির্মাণকাজ শুরুর কথা থাকলেও করোনার কারণে সে কার্যক্রমও বন্ধ। বন্ধ বলা হয়তো ঠিক হলো না। মূলত কাজই শুরু হয়নি।

শনিবার (২৫ জুলাই) বিকেলে এ বিষয়ে বিসিবি পরিচালক, বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান ও পূর্বাচল শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম প্রজেক্ট বাস্তবায়ন কমিটি প্রধান মাহবুব আনাম বলেন, ‘স্টেডিয়াম নির্মাণকাজ শুরু করতে পারিনি এখনও। অনেক দেরি হয়ে গেছে। করোনার কারণে কিছুই করা সম্ভব হয়নি। আমার ধারণা, আমরা ছয় মাস পিছিয়ে গেলাম।’

মাহবুব আনামের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, স্টেডিয়াম নির্মাণকাজ শুরুই হয়নি। কারণ মূল স্টেডিয়ামের ডিজাইনই এখনও প্রস্তুত হয়নি। কোনো কনসালট্যান্টও নিয়োগ দেয়া হয়নি। স্টেডিয়ামের স্থাপত্য নকশার দরপত্র জমা দেয়ার ক্ষেত্রে ব্যাপক সাড়া পড়লেও উৎসাহী দরদাতাদের মধ্য থেকে সংক্ষিপ্ত তালিকাও তৈরি হয়নি।

মাহবুব আনাম বলেন, ‘আগ্রহী নকশা ও স্থাপত্যের দরপত্র জমাদানকারীদের মধ্য থেকে স্পেশাল অব ইন্টারেস্ট হিসেবে ছয়জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা তৈরি করা হবে। এই ছয়জনের মধ্য থেকে সবচেয়ে ভালো ডিজাইন যিনি জমা দেবেন, যার যোগ্যতা বেশি থাকবে, তাকেই কাজ দেব। ওই শর্টলিস্টের ছয় কনসালট্যান্টের কাছ থেকে আমরা প্রেজেন্টেশন চাইবো।’

মাহবুব আনাম জানিয়েছেন, স্টেডিয়াম প্রজেক্ট বাস্তবায়ন কমিটি হয়তো এর মধ্যে অনলাইনে, না হয় সশরীরে বৈঠকে বসবেন। আগামীকাল রোববার ( ২৬ জুলাই) শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রজেক্ট বাস্তবায়ন কমিটির একটা অনানুষ্ঠানিক সভাও অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

মাহবুব আনামের কথা, ‘আসলে আমরা প্রজেক্টের পেপার ওয়ার্কগুলো করে রাখবো। বোর্ড মিটিং না হলে অনেক কিছুই সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। কাজেই এখন অপেক্ষা বোর্ড মিটিংয়ের।’ মাহবুব আনাম বলেন, ‘বোর্ডপ্রধান নাজমুল হাসান পাপন সাহেব ঈদের পর দেশে ফিরলে বোর্ড সভায় আমরা পূর্বাচল শেখ হাসিনা স্টেডিয়াম নিয়ে আলোচনা করবো। ’

প্রসঙ্গত, প্রোস্টেটের অপারেশনের জন্য বর্তমানে লন্ডন অবস্থানরত বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন দেশে ফেরার পর বোর্ড পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হবে। জানা গেছে, তিনি ঈদুল আজহার পরই দেশে ফিরবেন। সুতরাং বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা আগস্টের ৫ তারিখের পর।