পাকিস্তানে হাসপাতালের ছাদে পচাগলা মৃতদেহ


পাকিস্তানে হাসপাতালের ছাদে পচাগলা মৃতদেহ


পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে একটি হাসপাতালের ছাদে মিলল পচাগলা অসংখ্য মরদেহ। কেউ বলছেন এ মৃতদেহের সংখ্যা ২০০ আবার কারও কারও দাবি, সংখ্যাটি ৫০০–এর বেশি।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডনের খবরে বলা হয়েছে, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চৌধুরী পারভেজ এলাহী এ ঘটনার জন্য প্রদেশের স্বাস্থ্যসেবা সচিবের কাছে একটি প্রতিবেদন চেয়েছেন। তিনি বলেন, হাসপাতালের ছাদে লাশ ফেলা অমানবিক। দায়ী কর্মীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ঘটনায় ওই প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন।

আরও পড়ুনঃ রাশিয়ায় প্রশিক্ষণার্থী সৈন্যদের ওপর ২ বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ১১

লাহোর থেকে প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার দূরে মুলতানের ওই হাসপাতালের অ্যানাটমি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক মরিয়ম আশরাফ এক ভিডিও বার্তায় ঘটনার ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। হাসপাতালে কীভাবে অজ্ঞাত ও দাবিহীন মরদেহগুলোর চিকিত্সা করা হয় এবং কীভাবে মরদেহগুলো মেডিকেল শিক্ষার্থীদের শিক্ষার উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়, তা জানান তিনি।

তিনি বলেন, হাসপাতালের মর্গে অজ্ঞাত ও দাবিহীন মরদেহ রাখা হয়। সেই মরদেহগুলোতে পচন ধরতে শুরু হলে সেগুলো মর্গের ছাদে বাতাসযুক্ত কক্ষে রাখা হয়েছিল। তিনি দাবি করেন, কিছু দাবিহীন মরদেহ মেডিকেল শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদানের কাজে ব্যবহার করা হয়েছিল। আর তা নিয়ম ও বিধি মেনেই করা হয়েছিল।

তবে পাঁচ শতাধিক মৃতদেহ পাওয়ার খবর অস্বীকার করেন অধ্যাপক মরিয়ম আশরাফ। তিনি বলেন, চিকিত্সা পেশার লোকেরা আমাদের পরিস্থিতি বুঝতে পারবেন।