বাংলাদেশ- নিউজিল্যান্ড টেস্ট বাতিল, দেশে ফিরছেন মাহমুদউল্লাহরা



নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার জেরে বাতিল করা হয়েছে কাল থেকে শুরু হতে যাওয়া নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচ।

এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (এনজেডসি) এরই মধ্যে টুইট করে বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছে।

ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট শেষেই নিউজিল্যান্ড সফর শেষ হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। টেস্ট বাতিল হয়ে যাওয়ায় এখন দ্রুতই ফিরে আসবে বাংলাদেশ দল। কখন তাদের ফেরার ফ্লাইট, সেটি এখনো জানা যায়নি।

ক্রিকেট নিউ জিল্যান্ডের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট টিভিএনজেডকে বলেছেন, বিসিবির প্রধান নির্বাহীর সঙ্গে কথা বলে তারা টেস্ট বাতিল করেন।

তিনি বলেন, “আমরা একমত যে বর্তমান অবস্থা ক্রিকেট খেলার অনুপযোগী। সত্যি বলতে এটি অবিশ্বাস্য, আমরা স্তম্ভিত।”

হামলায় হতাহতদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানিয়েছে, টেস্ট বাতিলের সিদ্ধান্তে আইসিসির পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, গোলাগুলি থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে বাংলাদেশ দল। নিউ জিল্যান্ড ক্রিকেট ও বিসিবির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থাটি জানায়, গোলাগুলি শুরুর সময় টিম বাসে করে হ্যাগলি ওভালের কাছেই জুমার নামাজে যাচ্ছিল বাংলাদেশ দল। কেউ মসজিদের ভেতর ছিল না এবং সবাই নিরাপদে আছে।

দলের ফিটনেস ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়ন রয়টার্সকে বলেন, “গোলাগুলির শুরুর সময় ছেলেরা বাসে করে মসজিদে যাচ্ছিল। ওরা মাঠে ফিরেছে, বেশ আতঙ্কিত, তবে ভালো আছে।”

ঘটনার পরে আতঙ্কিত বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মানসিক অবস্থা ফুটে উঠছে তাদের টুইটে। তামিম ইকবাল টুইটারে লিখেন, “গোটা দল সক্রিয় বন্দুকধারীর হামলা থেকে রক্ষা পেয়েছে। ভীতিকর অভিজ্ঞতা। দয়া করে সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।”

বিবিসির এক মুখপাত্র পরে রয়টার্সকে জানায়, বাংলাদেশ দল এখন তাদের টিম হোটেলে আছে।