দ্বিতীয় টেস্টের জন্য প্রস্তুত সাগরিকা




চট্রগ্রামের সাগরিকা, দু’হাত ভরে দিয়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে। সাথে ‘লাকি ভেন্যু’ তকমাটাও জড়িয়ে নিয়েছে নিজের নামের সাথে। আর হবে নাই বা কেন? কত স্মৃতি জড়িয়ে আছে, কত জয়ের মুহূর্ত এসেছে এই মাঠে! সেই সাগরিকার জহুর আহমেদ চৌধুরী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় টেস্টে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া।
অনেক সম্ভাবনা নিয়ে চট্রগ্রামের পথে পাড়ি দেওয়া। ঢাকা টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে অজি ক্রিকেটের ভিত নাড়িয়ে দেওয়া টিম বাংলাদেশ ভাসছে আত্মবিশ্বাসে। অপরদিকে রাজ্য পরিমাণ চাপ, হোয়াইটওয়াশের শঙ্কায় সফরকারীদলটি।
বাংলাদেশ যেখানে স্বপ্ন দেখছে অস্ট্রেলিয়াকে ধবলধোলাই করার, অস্ট্রেলিয়া সেখানে সিরিজ বাঁচাতে মরিয়া। আর এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে দুই দলেই হতে পারে পরিবর্তন।
বাংলাদেশ ভাঙতে পারে তাদের উইনিং কম্বিনেশন। সেক্ষেত্রে দলে সুযোগ পেতে পারে মমিনুল হক। প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার ২০ উইকেটের ১৯টি-ই স্পিনারদের। বাকি একটি রান আউট। পেসারদের এমন ধারহীন পারফরম্যান্সের কারণেই বলি হতে পারে একজন। একাধিক সূত্র মতে, শফিউল ইসলামের পরিবর্তে দলে জায়গা পেতে পারেন মমিনুল।
এদিকে দল পরিবর্তন হবে অস্ট্রেলিয়ার তা একপ্রকার নিশ্চিত। ইঞ্জুরির কারণে জস হ্যাজেলউডকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার পরিবর্তে উড়িয়ে আনা হয়েছে স্টিভেন স্পিনার ও’কিফকে। ঢাকার মত হবে চট্রগ্রামের উইকেট, তা ধরে নিয়েই ও’কিফকে নিয়ে আসা। যদি তিনি দলে সুযোগ পান তবে ৭৯ বছরে এই প্রথম মাত্র একজন পেসার নিয়ে খেলবে অস্ট্রেলিয়া। শেষ ১৯৩৮ সালের অ্যাসেজে একজন পেসার নিয়ে খেলেছিল তারা।
দ্বিতীয় শেষ টেস্ট হারলে ছয় নম্বরে নেমে যেতে পারে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। অন্যদিকে, জিততে পারলে ওয়েস্টইন্ডিজকে টপকে আটে উঠে আসার সুযোগ থাকবে বাংলাদেশের।