যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধ ঘোষণা করেনি: হোয়াইট হাউস




যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার অভিযোগ এনেছিলেন উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়োং হো। যুক্তরাষ্ট্রের বোমারু বিমানকে ভূপতিত করার অধিকার পিয়ংইয়ংয়ের রয়েছে বলেও জানিয়ে দেন তিনি। তবে হোয়াইট হাউস এই অভিযোগকে অযৌক্তিক বলেছে। এছাড়া হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ হুকাবে স্যান্ডার্স যুদ্ধ ঘোষণার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধ ঘোষণা করেনি, পেন্টাগন শুধুমাত্র উসকানি বন্ধ করতে পিয়ংইয়ংকে সতর্ক করেছে।
উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়োং হো বলছেন, তাদের আকাশসীমায় যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধবিমান না থাকলেও সেটি হুমকি হিসেবে মনে করা হবে। পিয়ংইয়ং এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে পারে। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে ভাষণ দেওয়ার পর রি গত শনিবার সাংবাদিকদের বলেন, বিশ্বকে মনে রাখতে হবে যুক্তরাষ্ট্রই প্রথম আমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে।
জাতিসংঘে ট্রাম্প তাঁর ভাষণে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে রকেটম্যান হিসেবে অভিহিত করেন। এরপর থেকেই দুই দেশের নেতার মধ্যে বাগযুদ্ধ শুরু হয়। জাতিসংঘে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লিউ জিয়েই রয়টার্সকে বলেন, আমরা চাই পরিস্থিতি শান্ত হোক। পরিস্থিতি বিপজ্জনক হয়ে উঠছে।