শারিরীক হেনস্থাকারীর নাম জানালেন কঙ্গনা




বরাবরই বলিউডে’র ‘ঠোটকাটা’ তকমাটা কঙ্গনার। তাছাড়া নিজের জীবন নিয়ে লুকোচুরিও করেননা এই নায়িকা। বারবার এই প্রতিবাদী আচরণের কারণে অনেকের রোষের মুখে পরেছেন তিন। তাও যে তিনি পিছ পা হননি, সেটা আবারো প্রমান দিলেন এই নায়িকা।
সম্প্রতি এক সাক্ষাতকারে, মাত্র ১৭ বছর বয়সে বাবার বয়সী একজনের কাছে শারীরিক ভাবে হেনস্থা হওয়ার কথা প্রকাশ্যে এনেছিলেন নায়িকা। এ বার সম্ভবত সেই ব্যক্তির নামও ফাঁস করলেন তিনি।
ভারতীয় গনমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, কঙ্গনা যে ব্যক্তির দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন তিনি আদিত্য পাঞ্চোলি। সে সময় নাকি আদিত্যর স্ত্রী জারিনা ওয়াহাবের কাছে সাহায্যের জন্যও গিয়েছিলেন কঙ্গনা। কিন্তু জরিনা তাঁকে ফিরিয়ে দেন।
কঙ্গনার কথায়, ‘আমি ওর মেয়ের থেকেও এক বছরের ছোট ছিলাম। আমি ওর স্ত্রীর কাছে গিয়ে বলেছিলাম, আমাকে বাঁচান। কারণ এতটাই ছোট ছিলাম যে আমার সঙ্গে যা ঘটেছিল তা বাবা-মাকেও বলতে পারিনি।’
কিন্তু জারিন সে সময় তাঁকে কোনও সাহায্য করেননি বলে অভিযোগ করেছেন কঙ্গনা। এর পর বাধ্য হয়ে কঙ্গনা পুলিশের সাহায্য চেয়েছিলেন। সে সময় শুধুমাত্র ওয়ার্নিং দিয়েই নাকি আদিত্যকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।
উল্লেখ্য, নারী নিগ্রহে বারবার জড়িয়েছেন বলিউড অভিনেতা আদিত্য পাঞ্চোলি। এমনকি আদিত্য তার বাসার এবং তার এক সময়ের প্রেমিকা মন্দীরা বেদীর কাজের মেয়েকে ধর্ষণ করেছিল।তাছাড়া কঙ্গনা সহ অনেক নায়িকার সাথেই জড়িয়েছে এই অভিনেতার নাম। জিয়া খানের মৃত্যুর পর আদিত্যের ছেলে সুরাজ পাঞ্চোলিকে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছিল।