সবই বলেছি; পরিচালক দেখাননি, দায় তার: সঞ্জয় দত্ত



দর্শক সমালোচক উভয় মহলেই সমাদৃত সঞ্জু। প্রথম তিন দিনেই ১০০ কোটির রেকর্ড ছুঁয়েছিল ‘সঞ্জু’। ভেঙেছিল ‘বাহুবলী’ (হিন্দি)-র মতো ম্যাগনাম ওপাসের রেকর্ড। ইতিমধ্যেই বক্স অফিসে ৩০০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে এই সিনেমাটি।
তবে এই বায়োপিক নিয়ে সমালোচনাও কম হয়নি। রামগোপাল বর্মা তো ফের সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক তৈরির কথা ঘোষণা করেছেন। এর মধ্যেই মুখ খুললেন সঞ্জয় দত্ত।

প্রশ্ন উঠেছে ছবিটি তৈরি নিয়ে। সঞ্জয়ের বাবা-মায়ের সঙ্গে সম্পর্ক, ড্রাগ নেওয়া, ১৯৯৩-এ মুম্বই বিস্ফোরণ জড়িত থাকার অভিযোগে জেলে যাওয়া-সহ বিভিন্ন ঘটনা দেখানো হয়েছে এ কথা ঠিক। কিন্তু সব জায়গাতেই যেন সঞ্জয়কে মহিমান্বিত করার চেষ্টা করা হয়েছে। অন্তত এমনটাই মত বলি মহলের একটা বড় অংশের। অধিকাংশ দর্শকও ছবিটি দেখার পর এ হেন মন্তব্য করেছেন।

প্রশ্ন উঠেছে, বায়োপিকে সঞ্জয়ের জীবনের সম্পূর্ণ সত্যি কি দেখাতে পারলেন হিরানি?
আর তাই এ বার মুখ খুললেন খোদ সঞ্জয়। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেছেন, ছবি নির্মাতাদের তিনি নাকি জীবনের সব ঘটনাই জানিয়েছিলেন। তাঁর স্ত্রী মান্যতাও সব রকম ভাবে সাহায্য করেছিলেন। কিন্তু নির্মাতারা কতটুকু অংশ ছবিতে রাখবেন সে সিদ্ধান্ত তাঁদের। সঞ্জয়ের দাবি, তাঁর আগের স্ত্রী সন্তানের কথাও তিনি জানিয়েছেন হিরানিকে। কিন্তু তিনি তা কেন ছবিতে রাখেননি, তার জবাব নেই সঞ্জয়ের কাছে।

‘সঞ্জু’ মুক্তি পাওয়ার পর ঠিক এই প্রশ্নগুলোই উঠেছে। কেন সঞ্জয়ের জীবনের সব ঘটনা দেখানো হয়নি বায়োপিকে? তা হলে কি রাজকুমার নিজে যে ভাবে সঞ্জয়কে দেখতে চান সে ভাবেই কি ‘সঞ্জু’ তৈরি করেছেন?